ফের প্রাথমিক চাকরি বাতিলের হুশিয়ারি, 2014 সালের টেট এবং নিয়োগ বাতিলের আদেশ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি

2014 সালের টেট এবং নিয়োগ বাতিলের আদেশ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার।

পশ্চিমবঙ্গে টেট (শিক্ষক যোগ্যতা পরীক্ষা) হলো একটি শিক্ষামূলক পরীক্ষা, যা পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা পরিষদের দ্বারা পরিচালিত হয়। এই পরীক্ষার মাধ্যমে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষক পদের জন্য যোগ্যতা নিশ্চিত করা হয়। প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্য এই পরীক্ষাটি গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে কারণ এটি তাদের ভবিষ্যতে প্রাথমিক শিক্ষক হিসেবে কর্মরত হওয়ার পথে একটি প্রবেশ ব্যবধান হিসাবে কাজ করে।

প্রাথমিক চাকরি বাতিলের হুশিয়ারি 2014 সালের টেট

৫৯ হাজার ৫০০ চাকরি বাতিলের হুশিয়ারি, ২০১৪ সালের টেট এ ২০১৬ এবং ২০২০ সালে নিয়োগ করা হয়। টেট ২০১৪ প্রায় ৫৯ হাজার ৫০০ জনকে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি দেওয়া হয়।

এই নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে, এই দুর্নীতির তদন্ত করছে সিবিআই। টেট এর ও এম আর সিট জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে।

টেট বাতিলের বিষয়ে বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার বক্তব্য

কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি মঙ্গলবার প্রকাশ করেছেন, যে যদি ওএমআর শিটে অবৈধভাবে চিহ্নিত হয় তবে নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করা হবে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী, সিবিআই থেকে ওএমআর শিটের সঠিক তথ্য সংগ্রহ করা যাবে। ডিজিটাল ফুটপ্রিন্ট সন্ধানের জন্য কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা কাজ করবে। আগামী মঙ্গলবারের মধ্যে অতিরিক্ত রিপোর্টে স্পষ্টভাবে ব্যাখ্যা দেওয়া হবে এমনটি কীভাবে ঘটেছে এবং কোথায় দুর্নীতি ঘটেছে।

একদিকে চাকরি বাতিলের হুঁশিয়ারি এবং অন্যদিকে নতুন নিয়োগের নির্দেশ মান্থার, সেটাও প্রাথমিকে। নিয়োগ নির্দেশ রাজ্যে প্রাথমিকে ৪০০ জনকে নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের।

বিচারপতি নির্দেশ দিলেন যে, ৩ মাসের মধ্যেই জগ্য ৪০০ জনকে নিয়োগ করা হবে প্রাথমিক শিক্ষা সংসদে। অবিলম্বে হাওড়া জেলার প্রাথমিক শিক্ষা সংসদে ১৫১ জনের চাকরি দেবে এবং বাকিদের নিয়োগের জন্য প্রায় ২৫০ প্রাথমিকের পদ তৈরি করবে রাজ্য সরকার। তিন মাসের মধ্যেই এই ৪০০ জনকে নিয়োগ করতে হবে নির্দেশ বিচারপতি।

পাহাড়ে নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগ ২০১৭ সাল থেকে পাহাড়ে শিক্ষক নিয়োগে ব্যাপক কারচুপি, কোনও রকম পরীক্ষা ছাড়াই ১ হাজার ৫৩ জনকে নিয়োগ। তৎকালীন জিটিএ কর্তা বিনয় তামাংয়ের দেওয়া তালিকা দেখে চাকরি, বিনয় তামাংয়ের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে অভিযোগ। ছদ্মনামের চিঠিতে বিনয় তামাংয়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে অভিযোগ করেন, অভিযোগ খতিয়ে দেখতে সিবিআইকে প্রাথমিক অনুসন্ধানের নির্দেশ হাইকোর্টের।

আরো লেটেস্ট তথ্য পেতে আমাদের নোটিফিকেশনগুলো সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন।

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।